ইথিওপিয়া

ইথিওপিয়া উত্তর-পূর্ব আফ্রিকার একটি প্রজাতান্ত্রিক রাষ্ট্র। এর সরকারি নাম ইথিওপীয় সরকারী গণপ্রজাতন্ত্র। উঁচু পর্বত আর ঊষর মরুভূমির এই রুক্ষ দেশটিতে ৭০টিরও বেশি জাতিগত ও ভাষাগত গোষ্ঠীর মানুষের বাস।

কেন্দ্রীয় গণপ্রজাতন্ত্রী ইথিওপিয়া

የኢትዮጵያ ፌዴራላዊ
ዲሞክራሲያዊ ሪፐብሊክ
ye-Ītyōṗṗyā Fēdēralāwī
Dīmōkrāsīyāwī Rīpeblīk
পতাকা
জাতীয় মর্যাদাবাহী নকশা
নীতিবাক্য: নেই
রাজধানী
ও বৃহত্তর শহর
আদ্দিস আবাবা
সরকারি ভাষাআমহারী
স্বীকৃত আঞ্চলিক ভাষাঅন্যান্য ভাষাসমূহ আলাদার মধ্যে আধিকারিক ইথি্নসিটিস এবং তাদের নিজ নিজ অঞ্চলসমূহ
জাতিগোষ্ঠী
অরমো ৩৪.৫%, এমহারা ২৬.৯১%, সোমালি ৬.২০%, তিগ্রিনিয়া ৬.০৭%; সেদামা ৪%, গ্রেজ ২.৫%, ওয়েলেডা ২.৩%[1][2] এবং আসে পাশে অন্যান্য আশিটি ক্ষুদ্র নৃতাত্বিক দলা আছে।
সরকারকেন্দ্রীয় প্রজাতন্ত্র সংসদীয় প্রজাতন্ত্র
 রাষ্ট্রপতি
Girma Wolde-Giorgis
 প্রধানমন্ত্রী
আবি আহমেদ
প্রতিষ্ঠিত 
প্রায় ১০ম শতাব্দী খ্রীষ্টপূর্বাব্দ
 ঐতিহ্যবাহী তারিখ
৯৮০ খ্রীষ্টপূর্বাব্দ
৮ম শতাব্দী খ্রীষ্টপূর্বাব্দ
 আকসুমের রাজ্য
প্রায় ৪ম শতাব্দী খ্রীষ্টপূর্বাব্দ
 স্বাধীনতা অবেসিনিয়া
১১৩৭
 আংশিকভাবে ইতালি দ্বারা অধিকৃত অঞ্চল
১৯৩৬–১৯৪১
 United Nations Trusteeship আধীনে যুক্তরাজ্য দ্বারা শাসিত হয়েছে
১৯৪১–১৯৪৪
 সংবিধান
১৯৩৩, ১৯৫৫(রাজতন্ত্র), ১৯৮৭ (PDRE),১৯৯৫ (FDRE)
 গণপ্রজাতন্ত্র
১৯৯১
 পানি (%)
০.৭%
জনসংখ্যা
 ২০০৯ আনুমানিক
৮৫,২৩৭,৩৩৮[3] (১৪তম)
 ২০০৭ আদমশুমারি
৭৩,৯১৮,৫০৫
জিডিপি (পিপিপি)২০০৯ আনুমানিক
 মোট
$৭৭.৬০৫ বিলিয়ন[4] (৬৯তম)
 মাথাপিছু
$৯৫৫.২৯[4] (১৭৩তম)
এইচডিআই (২০০৮) ০.৩৮৯
ত্রুটি: মানব উন্নয়ন সূচক-এর মান অকার্যকর · ১৬৯তম
মুদ্রাবির (ETB)
সময় অঞ্চলইউটিসি+৩ (EAT)
 গ্রীষ্মকালীন (ডিএসটি)
ইউটিসি+৩ (পর্যবেক্ষণ করা হয়নি)
কলিং কোড২৫১
ইন্টারনেট টিএলডি.et
1Ethiopia is ostensibly a democracy, but has a dominant-party system led by the Ethiopian People's Revolutionary Democratic Front.
2Rank based on 2005 population estimate by the United Nations

বিংশ শতাব্দী পর্যন্তও দেশটি আবিসিনিয়া নামে পরিচিত ছিল। ইথিওপিয়া আফ্রিকার প্রাচীনতম স্বাধীন রাষ্ট্র। প্রথম শতাব্দীতে এখানে আকসুম নামের একটি শক্তিশালী খ্রিস্টান সাম্রাজ্যের পত্তন হয়। ১৬শ শতকের পরে ইথিওপিয়া অনেকগুলি ক্ষুদ্র রাজ্যে বিভক্ত হয়ে যায়। ১৮৮০-র দশকে রাজা ২য় মেনেলিক-এর অধীনে এগুলি পুনরায় একত্রিত হয়। ১৯৫০-এর দশক থেকে ইরিত্রিয়া ইথিওপিয়ার একটি অংশ ছিল, কিন্তু ১৯৯৩ সালে এটি বিচ্ছিন্ন হয়ে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র গঠন করে।

ইথিওপিয়ার উত্তর-পূর্বে ইরিত্রিয়া এবং জিবুতি, পূর্বে ও দক্ষিণ-পূর্বে সোমালিয়া, দক্ষিণ-পশ্চিমে কেনিয়া এবং পশ্চিম ও উত্তর-পশ্চিমে সুদান। দেশটি নয়টি প্রশাসনিক অঞ্চলে বিভক্ত। প্রতিটি অঞ্চলে একটি করে প্রধান জাতিগত গোষ্ঠী বাস করে। আদ্দিস আবাবা ইথিওপিয়ার রাজধানী ও বৃহত্তম শহর।

রাজনীতি

প্রশাসনিক অঞ্চলসমূহ

ভূগোল

অর্থনীতি

== জনসংখ্যা ==৭০ লক্ষ প্রায়

সংস্কৃতি

আরও দেখুন

তথ্যসূত্র

  1. 2007 Census, jimmatimesপিডিএফ (৫১.৭ KB) . প্রতিবেদন প্রকাশিত হেয়েছে ৩রা মে ২০০৯.
  2. ইথিওপিয়ার দূতাবাস, ওয়াশিংটন, ডিসি ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩০ জানুয়ারি ২০০৮ তারিখে. প্রতিবেদন প্রকাশিত হেয়েছে ৬ই এপ্রিল ২০০৬.
  3. সিআইএ পৃথিবীর ফেক্টবুক: ইথিওপিয়া
  4. "Ethiopia"। International Monetary Fund। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-১০-০১

বহিঃসংযোগ


আফ্রিকা বিষয়ক এই নিবন্ধটি অসম্পুর্ণ, আপনি চাইলে এটিকে সমৃদ্ধ করতে পারেন।

This article is issued from Wikipedia. The text is licensed under Creative Commons - Attribution - Sharealike. Additional terms may apply for the media files.